ঝালকাঠি জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় দূর্গাপূজা উদযাপন ও মাদক নির্মূলের উপর গুরুত্বারোপ l

প্রকাশিত: ৭:০১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০২১

ঝালকাঠি জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় দূর্গাপূজা উদযাপন ও মাদক নির্মূলের উপর গুরুত্বারোপ l

রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু, ঝালকাঠি॥ কোভিড ১৯ মহামারির কারণে প্রায় ৬ মাস পর ঝালকাঠি জেলা আইন শৃঙখলা কমিটির সভা স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় হলরুমে জেলা প্রশাসক মো: জোহর আলীর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন, ঝালকাঠি সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো: ইউনুস আলী সিদ্দিকী, সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো: হেমায়েত উদ্দিন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর বাবু তরুন কর্মকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো: কামাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট লতিফা জান্নাতি, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেকুন্নাহার, নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মর্তা রুম্পা সিকদার, কাঠালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুফল চন্দ্র গোলদার, জেলা তথ্য কর্মকর্তা মো: আহসান কবীর, সহকারী কমিশনার (সাধারণ শাখা) সিফাত বিন সাদেক, ঝালকাঠি চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সালাউদ্দিন আহমেদ সালেক, প্রমুখ।
সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, আসন্ন দুর্গাপূজা যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যে উদযাপনের প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। যাতে শান্তিপূর্ণভাবে হিন্দুদের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব সুন্দরভাবে উদযাপন করতে পারে সে ব্যাপারে সকলকে সহযোগীতা করার আহ্বান জানান। তিনি আরো বলেন, বাল্য বিবাহ বন্ধ, সমাজ থেকে মাদক নির্মুল, কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ রাখতে অভিভাবকসহ সকলের আন্তরিক সহযোগীতা প্রয়োজন। তিনি মাদক নির্মূলে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর ঝালকাঠিকে আরো গতিশীল কার্যকরী ভূমিকা পালন করার তাগিদ প্রদান করেন।
পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমীন বলেন, কিশোর গ্যাং বন্ধ, মাদক নির্মুল ও বাল্য বিবাহ বন্ধে জেলা পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, সকর অপরাধের মূল হচ্ছে মাদক। তাই যেকোন উপায়ে আমাদের মাদক নির্মুল করতে হবে। এক্ষত্রে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ঝালকাঠি আমাদের সহযোগীতা নিতে পারেন। তাদের জনবল সংকট থাকলে পুলিশ দিয়ে আমরা তাদের কাজে সহযোগীতা করব। তিনি কিশোর ও শিক্ষার্থী অভিভাবকদের তাদের সন্তানের প্রতি নজর দেয়ার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।
সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের সিভিল সার্জনের পক্ষে বক্তব্য রাখেন ডা: আবুয়াল হাসান। তিনি জানানযে, ঝালকাঠি জেলায় ৪,৬৫২ জন লোক করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল, ৪,৪৯৫ জন সুস্থতা লাভ করেন এবং ৭২ জন মৃত্যুবরণ করেন।
সভায় ঝালকাঠির সার্বিক আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় জেলার সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে যথাযথ দায়িত্ব পালনের জন্য জেলা প্রশাসক দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।


মুজিব বর্ষ

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Pin It on Pinterest