বরিশালে মোবাইল কোর্ট অভিযান অব্যাহত আজ ১ জনকে ১ মাসের জেল এবং জরিমানা।

এপ্রিল ০৬ ২০২০, ১৮:২৯

পারভেজ,বরিশাল প্রতিনিধিঃ করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে গৃহীত প্রতিরোধমূলক কার্যক্রম ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ এবং এ বিষয়ে জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধকরণের লক্ষ্যে বরিশাল জেলা প্রশাসনের নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ৬ই এপ্রিল সোমবার সকাল থেকে বরিশাল মহানগরীর চৌমাথা, নতুল্লাবাদ, আমতলার মোড়, সাগরদী ব্রাঞ্চ রোড, কালিজিরা, রুপাতলী, সদর রোড এলাকায় জেলা প্রশাসন বরিশাল এর পক্ষ থেকে ২ টি মোবাইল কোর্ট টিম অভিযান পরিচালনা করেন। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অধিক মানুষের সমাগম করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা পালনের পাশাপাশি গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে। জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস, এম, অজিয়র রহমানের নির্দেশনায় মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়। মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয় বরিশাল মোঃ জিয়াউর রহমান এবং মোঃ নাজমুল হুদা।
করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে গণসচেতনতা ও লিফলেট বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি এ সময় বিভিন্ন টি-স্টল, মুদি দোকান ও এলাকার মোড়ে মোড়ে যেখানেই জনসমাগম দেখা গেছে তা ছত্রভঙ্গ করা হয় এবং নিরাপদ দূরত্বে চলার নির্দেশনা প্রদান করা হয়। পাশাপাশি সবাইকে যৌক্তিক প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে আসতে নিষেধ করা হয় এবং এ আদেশ অমান্যাকরীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেয় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমুল হুদা। অভিযান পরিচালনা কালে টিসিবি এবং ওএমএস এর পণ্য বিক্রয় কালে গ্রাহকদের লম্বা লাইনে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থানের বিষয়টি সামনে থেকে তদারকি করা হয় এবং এ দূরত্ব বজায় রেখে গ্রাহকসেবা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়। এছাড়া গাদাগাদি করে সামাজিক দূরত্ব না মেনে ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল যোগে বরিশাল থেকে বিভিন্ন গন্তব্যে যাত্রী পরিবহন কালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে একজন করে মোটরসাইকেলে চলার নির্দেশ প্রদান সহ রিক্সায় একজন পরিবহন করার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। এসময় নগরীর আমতলার মোড় এলাকায় ফিরোজ স্টোরে জনসমাগম করে চা বিক্রয় করার অপরাধে সংক্রামক রোগ (নিয়ন্ত্রণ, প্রতিরোধ ও নির্মূল) আইন ২০১৮ এর ২৪ ধারায় মোঃ ফিরোজ কে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে দোকান চালানোর জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়।
পাশাপাশি সাগরদী ব্রাঞ্চ রোড এলাকায় একই আইনে জনসমাগম করে চা বিক্রয় করার অপরাধে মোঃ আয়োব আলী কে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানে প্রসিকিউসন অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন বরিশাল সদর উপজেলা নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক ও সেনেটারি অফিসার মোঃ জাকির হোসেন। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন র‍্যাব-৮ এর এএসপি মুকুর চাকমাসহ র‍্যাব-৮ সদস্যরা। অপরদিকে বরিশাল মহানগরীর সদর রোড, বাংলাবাজার, আমতলা, চৌমাথা, নতুল্লাবাদ ও কাশীপুর এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয় বরিশাল মোঃ জিয়াউর রহমান।
অভিযানকালে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ কাজে বাধা প্রদান করায় নগরীর বাংলাবাজার এলাকায় অলিউর রহমান চিশতী (৪৫) নামক এক ব্যক্তিকে দণ্ডবিধি ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারায় এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। পাশাপাশি সবাইকে যৌক্তিক প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে আসতে নিষেধ করা হয় এবং এ আদেশ অমান্যাকরীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। নগরীর বিভিন্ন প্রান্তের টিসিবির পণ্য বিক্রয় কার্যে সামাজিক দূরত্ব মেনে লাইন তৈরির বিষয়টি দাঁডিয়ে থেকে তদারকি করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট। অভিযানে প্রসিকিউসন অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন কতোয়ালী মডেল থানার এসআই মোঃ হেমায়েত হোসেন। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি টিম। অভিযান শেষে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদ্বয় বলেন, জনগণকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষায় জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস, এম, অজিয়র রহমান সদা সচেষ্ট এবং তাঁর নির্দেশনায় নিয়মিত এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আমাদের ফেসবুক পেজ


Pin It on Pinterest