মির্জাগঞ্জে গ্রাহকের ২ কোটি টাকা নিয়ে উধাও মোনাভী অল বাংলাদেশ ॥ দুই কর্মকর্তা আটক

জানুয়ারি ১৪ ২০২০, ২০:৪৬

কামরুজ্জামান বাঁধন,মির্জাগঞ্জ প্রতিনিধি॥ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে মোনাভী অল বাংলাদেশ নামে একটি মাল্টি লেভেল ভুয়া কোম্পানি শতাধিক নারী পুরুষ গ্রাহকের কাছ থেকে আড়াই কোটি টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার বিকালে উপজেলার সদরস্থ সুবিদখালী তিন রাস্তার মোড় এলাকায়।

জানা যায়, ২০১৮ সালের ১৩ ডিসেম্বর মোনাভী অল বাংলাদেশ(প্রাঃ) লিঃ  নামের এই কোম্পানিটি মির্জাগঞ্জে পণ্য বিক্রি ও অধিক মুনাফার লোভ দেখিয়ে গ্রাহক সংগ্রহের লক্ষ্যে ৮০জন প্রতিনিধি নিয়োগ দিয়ে কার্যক্রম শুরু করেন  প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মো. জামাল হোসেন মুকুল। জামানত বাবদ ৭০হাজার টাকা করে নিয়ে মাস ব্যাপী প্রশিক্ষন দেয়া হয় নিয়োগকৃত প্রতিনিধিদের। প্রতারনার শিকার রানা গাজী(সঙ্গীত),আসমা আক্তার,শাহআলম,সাইদুর রহমান বলেন, প্রতিজন প্রতিনিধি ২০হাজার টাকা দামের একটি এলইডি টিভি বিক্রি করতে পারলে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ তাকে ১ হাজার ৭’শ টাকা ফেরত দেয় নিজস্ব একাউন্টের মাধ্যমে।হাতে গোনা দু এক প্রতিনিধি টিভি বিক্রির কমিশনের টাকা ফেরত পেলেও অধিকাংশ প্রতিনিধিকে টাকা দেয়নি প্রতিষ্ঠানটি।পণ্য বিক্রির কার্যক্রম ছাড়াও অধিক মুনাফার লোভ দেখিয়ে গোপনে ক্রেডিট কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল এ ভুয়া কোম্পানিটি।এক লক্ষ টাকা জমা দিয়ে প্রতি মাসে ১ হাজার ৭০০টাকা হারে দুই বছরে ১ লক্ষ ৭০হাজার ফেরত দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহ করে। অনেক নি¤œবিত্ত পরিবারের নারীরা অধিক মুনাফার লোভে বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋন নিয়ে এখানে ২লক্ষ,৩লক্ষ টাকা জমা দিয়েছেন বলেও ভুক্তভোগী গ্রাহকরা জানান। এভাবে ৮০-৮৫জন গ্রাহকের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহ করেছে এ প্রতারক চক্রটি। পণ্য বিক্রির জন্য নিয়োগকৃত প্রতিনিধি ও গ্রাহকের নিকট থেকে ২ কোটি ৫০লক্ষ টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে ভুয়া এই কোম্পানির কর্মকর্তারা। সোমবার বিকেলে পাশর্^বর্তী বিভিন্ন উপজেলা থেকে এই কোম্পানির শাখা অফিস লাপাত্তা হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে গ্রাহকরা অফিসের দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের নিকট এ বিষয়ের সত্যতা জানতে চাইলে তারা কোন সদুত্তর না দিতে পারায় এবং উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়ায় গ্রাহকরা ফুঁসে উঠেন। গ্রাহক ও কর্মকর্তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে গ্রাহকরা টাকা ফেরতের দাবীতে অফিসের দুই কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে এবং অফিস সংলগ্ন বরিশাল-বাকেরগঞ্জ-বরগুনা মহাসড়ক অবরোধ করলে মির্জাগঞ্জ থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে কোম্পানীর দুই কর্মকর্তা মো.রফিকুল ইসলাম ও মো.আবদুল মালেক হাওলাদারকে আটক করে পুলিশ।

এ বিষয়ে কথা বলতে ঐ কোম্পানির চেয়ারম্যান জামাল হোসেন মুকুলের মোবাইল নম্বরে (০১৭৭০-৪৪৪৮৩৭) একাধিকবার কল করলেও তার মোবাইলটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে মির্জাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)এম.আর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান,গ্রাহক রানা গাজী (সঙ্গীত) বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ ও ১০/১২জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে সোমবার রাতে মির্জাগঞ্জ থানায় একটি প্রতারনা মামলা দায়ের করেছেন। দুই জনকে গ্রেফতার করে পটুয়াখালী জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

 

মুজিব বর্ষ

আমাদের ফেসবুক পেজ


ভিন্ন খবর আরও

Pin It on Pinterest