রাজগঞ্জের দুই বাড়িতে পাঁচটি করে বাচ্চা প্রসব করলো দুটি ছাগী

প্রকাশিত: ৭:৩৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২০

রাজগঞ্জের দুই বাড়িতে পাঁচটি করে বাচ্চা প্রসব করলো দুটি ছাগী

উত্তম চক্রবর্তী, মণিরামপুর (যশোর) অফিস৷৷ রাজগঞ্জে ছাগী একসঙ্গে সাধারণত দুটি বা তিনটি বাচ্চা প্রসব করে। কিন্তু একসঙ্গে দেশি ছাগলের পাঁচটি বাচ্চা প্রসবের ঘটনা বিরল। মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জের খালিয়া ও জলকর রোহিতা গ্রামের দুই বাড়িতে পাঁচটি করে বাচ্চা দিয়েছে দুটি ছাগী। মালিকেরা খুশি হলেও অপুষ্ঠ বাচ্চাগুলোর সুস্থতা নিয়ে চিন্তিত তারা। রাজগঞ্জের খালিয়া গ্রামের আব্দুল মজিদ মোড়লের স্ত্রী ফাতেমা খাতুন বলেন, পাঁচ বছর আগে ছাগলটি কিনে আনি। এরআগে তিনবার চারটি করে বাচ্চা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে একসঙ্গে ছাগলার পাঁচটা বাচ্চা হয়েছে। তার মধ্যে চারটা খাসি ও একটা ছাগী। তবে, বাচ্চাগুলো দুধ পাচ্ছে না। একসাথে ছাগলের পাঁচ বাচ্চা হওয়ার কথা শুনে গত দুই দিন ধরে লোকজন বাড়ি ছাড়ছে না। ওই গ্রামের বৃদ্ধা রাবেয়া বেগম বলেন, জীবনে এই প্রথম শুনলাম একসাথে ছাগলের পাঁচ বাচ্চা হতে। খবর শুনেই দেখতি আইছি। জলকর রোহিতা গ্রামের উত্তম দাস বলেন, চারবছর আগে চারহাজার টাকায় ছাগলটি কিনেছিলাম। এরআগে তিনবার বাচ্চা দিয়েছে। ১৫-১৬ দিন আগে বাচ্চা হয়েছে পাঁচটি। একসাথে পাঁচ বাচ্চা হওয়ায় বাচ্চাগুলো বেশ দুর্বল। স্থানীয় রাজগঞ্জ বাজারের পল্লী চিকিৎসক (পশু) বিল্লাল হোসেন বলেন, ফাতেমা খাতুনের ছাগলের বাচ্চাগুলো সুস্থ আছে। দুধ বাড়ানোর জন্য মাকে ক্যালসিয়াম ও অন্যান্য ওষুধ দেওয়া হচ্ছে। মণিরামপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আবুজার ছিদ্দিকী বলেন, এখন দেশি জাতের (ব্লাক বেঙ্গল গোট) ছাগলের পাঁচটি করে বাচ্চা হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। তিনি বলেন, মায়ের দুধের ঘাটতি হলে বাচ্চাগুলোকে গরুর দুধ খাওয়াতে হবে। সেক্ষেত্রে একপোয়া দুধের সঙ্গে তিনপোয়া পানি মিশাতে হবে। এছাড়া বাজারেও দুধ পাওয়া যাচ্ছে। সেটা কিনে খাওয়ানো যেতে পারে।


মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest