দুমকিতে গাছ চাঁপায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বসত:ঘর বিধ্বস্ত, আহত-৩

প্রকাশিত: ৬:৪৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০১৯

দুমকিতে গাছ চাঁপায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বসত:ঘর বিধ্বস্ত, আহত-৩

দুমকি (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি\ অতি প্রবল ঘূর্ণীঝড় ‘বুলবুলে’র তান্ডবে পটুয়াখালীর দুমকিতে গাছ উপড়ে ঘরচাঁপা পড়ে বসত:ঘর সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত ও একই পরিবারের শিশুসহ অন্তত: ৩ব্যক্তি আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার ভোররাতে (সাড়ে ৩টা) উপজেলা শহরের পিরতলা বাজার সংলগ্ন চৌকিদার বাড়িতে গাছ উপড়ে ঘরচাঁপা পড়ার দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। এবং একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবিএন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একাট ভবন সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়েছে।
চৌকিদার বাড়ির বাসিন্দা মো: রুহুল আমীন (৫৫) জানান, অতি প্রবল ঘূর্ণীঝড় ‘বুলবুলে’র তান্ডব শুরু হলেও পার্শ্ববর্তি পাকা ভবন থাকলেও সিদ্দিক মোল্লার পরিবারের লোকজন টিনের বসত:ঘরটিতে অবস্থান করছিল। প্রবল ঘূর্ণীঝড়ে পুকুর পাড়ের একটি বিশাল কড়াইগাছ উপড়ে চাঁপা পড়লে সিদ্দিক মোল্লার বসত:ঘরটি সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়। এসে সিদ্দিক মোল্লা (৩৫), পারুল বেগম (৩০) রেহেনা বেগম (৫৫) ও মিতা (৩) ঘরের নীচে চাপা পড়ে আহত হয়। বাড়ির ও প্রতিবেশী লোকজন ছুটে গিয়ে আহতদের গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে পাঠায়।
এদিকে উপজেলার চরগরবদি গ্রামের সোহরাব হোসেন খান, শ্রীরামপুর ইউনিয়নের মুছা হাওলাদার, পাংগাশিয়া ইউনিয়নের আলগি গ্রামের ফোকান মৃধা, কাঞ্চন আকন, সুলতান মল্লিক, বাকের মাওলানাসহ বিভিন্ন এলাকায় অন্তত: ২৫/৩০ বসত:ঘর বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি। এছাড়া ঘূর্ণীঝড়ে উপজেলার সর্বত্রই গাছ-পালা উপড়ে ও ডালপালা ভেঙ্গে ও আমন ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিশেষত: পায়রা নদীর তীরবর্তি পাংগাশিয়া ইউনিয়নের রাজগঞ্জ, চান্দখালী, মধ্য পাংগাশিয়া, হাজির হাট এলাকায় ব্যাপক গাছপালা উপড়ে পড়ে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। গাছ উপড়ে পড়ায় ধোপার হাট থেকে পাংগাশিয়া মাদ্রাসা সড়ক ও হাজিরহাট থেকে পাগলা সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শঙ্কর কুমার বিশ্বাস বলেন, ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানদের তালিকা তৈরী করে রিপোর্ট করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest