মর্নিংবেল চিল্ড্রেন একাডেমীর উদ্যোগে শতাধিক কোরআনে হাফেজ দের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ

প্রকাশিত: ১১:৩৭ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০২০

মর্নিংবেল চিল্ড্রেন একাডেমীর উদ্যোগে শতাধিক কোরআনে হাফেজ দের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ

মাহমুদুর রহমান, ঝিনাইদহ :
ঝিনাইদহ জেলার একটি স্বনামধন্য সুপরিচিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মর্নিংবেল চিল্ড্রেন একাডেমী। প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের শিক্ষা,সংস্কৃতি ঐতিহ্য ও ঋতু বৈচিত্রের সাথে মানুষকে পরিচয় করিয়ে দেয় ভিন্ন আঙ্গিকে।

দেশের সমস্ত উৎসবে যেমন থাকে তাদের পদচারণা তেমনি দেশের দুর্যোগে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মানুষের পাশে এসে দাঁড়ায়। মানুষের জন্য গায় মানবতার গান। সেই লক্ষ্যে এই দুর্যোগের মধ্যে ঝিনাইদহ জেলার শতাধিক মসজিদের ইমাম খাদেম, কুরআনে হাফেজদের সম্মানিত করলেন ঈদ উপহার সামগ্রী হাতে হাতেপৌঁছে দিয়ে।

২১ শে মে ,সকাল দশটায় মর্নিংবেলচিল্ড্রেন একাডেমির নিজ প্রাঙ্গণে মোঃ শাহিনুর আলম লিটনের সার্বিক তত্ত্বাবধান ও স্কুল শিক্ষকদের সাথে নিয়ে এই উপহার সামগ্রী প্যাকেটজাত করা হয়। তারপর সেগুলো মোটরসাইকেল যোগে হাতে হাতে পৌছে দেয়া হয়। এই দুর্যোগে মর্নিংবেল চিল্ড্রেন একাডেমি পরিবার, বিভিন্ন পেশার,ধর্মের বর্ণের,সংস্কৃতি অঙ্গনের সকল অসহায় মানুষের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। এ প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মোঃ শাহিনুর আলম লিটন। মূলত মোঃশাহিনুর আলম লিটনের সুদক্ষ পরিচালনায় প্রতিষ্ঠানটি দেশের সমস্ত ক্ষেত্রে অবদান রেখে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য মর্নিং বেল চিল্ড্রেন একাডেমি পরিবার করোনায় দুর্গত মানুষের কথা ভেবে সমাজের অসহায় দুস্থ নিম্নবিত্ত মধ্যবিত্ত দের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিয়ে যাচ্ছেন। ঘর ছেড়ে বাহিরে বের হওয়া মানুষের নিরাপত্তার কথা ভেবে ঝিনাইদহ মুন্সি মার্কেটের সামনে স্থাপন করে দিয়েছেন করোনা জীবাণুনাশক টানেল। এছাড়া মানুষকে ঘরে ফেরাতে প্রচারণা রেখেছেন অব্যাহত।

ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ উপলক্ষে মর্নিংবেল চিলড্রেন একাডেমীর অধ্যক্ষ মোঃ শাহিনুর আলম লিটন বলেন আমরা সমাজের সব শ্রেণীর অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি আমাদের সীমিত সামর্থ্য থেকে। চেষ্টা করেছি সব শ্রেণীর মানুষের দুঃখে সমব্যথী হওয়ার। আমরা এ পর্যন্ত রঙ মিস্ত্রী, বাবুর্চি, ডেকোরেটর শ্রমিক, নির্মাণ শ্রমিক, সাউন্ড অপারেটর, ভিডিও ক্যামেরা পার্সন, সেলুন কর্মচারিদের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। সেই লক্ষ্যে আমাদের সমাজের সম্মানিত মসজিদের ইমাম খাদেম ও কোরআনের হাফেজদের হাতে কিছু উপহার তুলে দিতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।


মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest