বিপিএলে বরিশাল দল না থাকায় হতাশা প্রকাশ করেছেন কামরুল ইসলাম রাব্বি

প্রকাশিত: ১০:৪০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

বিপিএলে বরিশাল দল না থাকায় হতাশা প্রকাশ করেছেন কামরুল ইসলাম রাব্বি
পারভেজ,বরিশাল প্রতিনিধিঃ বিপিএলে বরিশাল টিম না থাকায় হতাশ হয়েছি: কামরুল ইসলাম রাব্বি। আসন্ন বঙ্গবন্ধু বিপিএলে বরিশাল নামক কোনো দল নেই। দেশের ক্রিকেটে সবচেয়ে বড় আসরে বরিশালের কোনো দল ছিলোনা গত দুই আসরেও। বিপিএলে বরিশাল খেলেছিলো শেষ ২০১৬ সালে। এরপর কোথায় যেনো হারিয়ে গেলো দলটি। এবার বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আসরটি জাঁকজমকভাবে আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। উত্তেজনাপূর্ণ এই আসরে এবারও বরিশালের কোনো দল না থাকায় হতাশ রাজশাহী রয়্যালসের ডানহাতি পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি, যার মাতৃভুমি এই বরিশালেই । বৃহস্পতিবার দুপুরে মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপচারিতায় রাব্বি বলেন, ‘এই আসরে মোটামুটি সব কয়টি বিভাগই টিম গঠন করেছে, কিন্তু বরিশাল নেই। তাই আমরা হতাশ। বোর্ড ও টিমের সাথে বরিশালের যারা সম্পৃক্ত আছে তারা যেনো পরবর্তীতে খেয়াল রাখে। জনসাধারণেরও চাওয়ায় আমরাও চাই, বরিশাল যেনো সবসময় বিপিএলে টিম রাখে। আপনারা জানেন বিগত যে কয়টি আসরে বরিশাল ছিল তারা কিন্তু ভালো করেছে।’ রাব্বী আরো বলেন, ‘আপনারা জানেন যে বরিশালের একটি শ্লোগান ছিল, ‘কিডনি বিক্রি করেও হলে বরিশালের টিম গঠন করা হোক’ তাই আমারা জানি যে বরিশালের মানুষ ক্রিকেটকে খুব ভালোবাসে। সব লিগেই কিন্তু বরিশাল ভালো করছে। সেটাই চাওয়া বরিশালের স্টুডেন্ট ও জনগণের।’ তবে এ বছর বরিশাল দল না থাকায় বরিশালবাসী বিপিএল বর্জনের ঘোষনাও তিনি অবহিত হন। ২৭ বছর বয়সী এ পেসার যোগ করেন, ‘দেখেন বিপিএলের মতো আসরে আমরা যারা, জাতীয় টিমে আছি, আমি, সোহাগ গাজী, শাহরিয়ার নাফিস আরো অনেককে আমাদেরকে দেখে কিন্তু স্থানীয় খেলোয়াড়েরা ক্রিকেটে প্রতি অনুপ্রাণিত হচ্ছে। কিছু দিন পূর্বে বরিশালে অনুর্ধ ১৯ দল শ্রীলংকা বনাম বাংলাদেশেরর মধ্যকার ম্যাচটিতে যে ভেন্যু করা হয়েছে তাতে দর্শকের উপস্হিতি ছিলো নজর কারার মত। তাই বরিশালের দিকে ম্যানেজমেন্ট কে খেয়াল রাখা দরকার। তাহলে ভালো ভালো খেলোয়াড় উঠে আসবে। তরুণরাও নেশা বা খারাপ কাজের দিকে ঝুঁকবে না। প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে বিপিএলের প্রথম আসরে অংশগ্রহণ করেছিলো বরিশাল বার্নার্স। ওই আসরে ফাইনালও খেলেছিলো তারা। তবে সেবার ঢাকার কাছে হেরে শিরোপা ছুঁয়ে দেখতে পারেনি দলটি। ওই আসরের ফাইনালিস্ট ছিলো তারা। ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে ছিল নানা জটিলতা থাকায় ২০১৫ সালে মালিকানা পরিবর্তন করে বরিশাল বুলস নামে অংশ নেয় দলটি। সেবারও ফাইনালে পৌঁছে তারা। তবে কুমিল্লার কাছে হেরে সেবারও স্বপ্নভঙ্গ হয় তাদের। পরবর্তীতে ফ্র্যাঞ্চাইজির কিছু আর্থিক শর্ত না মানতে পারায় দলটিকে আসর থেকে বাদ দেয় গভর্নিং কমিটি।

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest