ঠাকুরগাঁওয়ে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৪:২০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০১৯

ঠাকুরগাঁওয়ে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি \ যুবলীগ নেতা সোহেল রানার নানা রকম অনৈতিক ও সমাজবিরোধী কর্মকান্ডে অতিষ্ট ঠাকুরগাওঁ শহরবাসী। সম্প্রতি এক নারীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও জেলা শিল্পকলা একাডেমির সম্মুখে ডিসি বস্তির বাসিন্দা মৃত তসলিম উদ্দিনের ছেলে ঠাকুরগাঁও পৌর যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা সোহেল রানা দীর্ঘদিন যাবত এলাকার নারীদের উত্যক্ত করে আসছে। সোমবার (২৮ অক্টোবর) দিবাগত রাত একটার দিকে একই এলাকার মৃত উজ্জলের স্ত্রী মর্জিনার অনুমতি ছাড়াই ঘরে ঢোকে।এসময় তাকে জড়িয়ে ধরে শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়।

পরে স্থানীয় যুবক তনু চিৎকার শুনে এগিয়ে আসলে সোহেলের সাথে তার হাতাহাতি ও বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এসময় স্থানীয়রা টের পেয়ে সোহেল রানাকে আটক করে রাখে এবং গণপিটুনি দেয়। পরে রাত দুইটার দিকে সোহেলের বড় ভাই আজম এসে সকালে সুষ্ঠু বিচার করে দেবে বলে আশ্বস্থ করলে
তাকে ছেড়ে দেয়। কিন্তু পরের দিন তাকে আর পাওয়া যায়নি।

ঘটনার বিচার চেয়ে তনু ফেসবুকে একটি স্টাটাস দিলে তাকে দেখে নেবার হুমকি আসতে থাকে। সোহেলের আটকের বিষয়ে একটি ভিডিও ফেসবুকে ঘুরপাক খাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার(৩১ আগষ্ট)ভুক্তভোগী মর্জিনা এলাকায় গণস্বাক্ষর নিয়ে সোহেল রানার বিরুদ্ধে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা সোহেল রানার কাছে ঘটনার বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাকে সম্মানহানি করার জন্য নানা রকম কথা ছড়াচ্ছেন। এলাকার কয়েকজন সন্ত্রাসী আমার উপর হামলা করেছে ওই বিষয়কে কেন্দ্র। আমি ইতোমধ্যে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি।

ঘটনার বিষয়ে ঠাকুরগাঁও পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক আমির হোসেন রুবেলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জেলা যুবলীগ ও পৌর যুবলীগ বরাবর মর্জিনা বেগম নামে এক মহিলা সোহেলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের চেষ্টার এক লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সোহেলকে ইতিমধ্যে সংগঠনের নিয়ম অনুযায়ী সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রেরণ করা হয়েছে। পরবর্তীতে জেলা যুবলীগের সাথে আলোচনা করে সাংগঠনিক ভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক দেবাশীষ দত্ত সমীর জানান, দলের নাম ভাঙ্গিয়ে কোন নেতাকর্মী যদি অনৈতিক কাজের সাথে জড়িত থাকার প্রমান পাওয়া যায় তাহলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যুবলীগ নেতা সোহেলের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ ইতোমধ্যে এসেছে । বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান (পিপিএম) বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধায় আমাদের হাতে একটি লিখিত অভিযোগ এসেছে। তদন্ত করে অভিযোগ প্রমানিত হলে আমরা আইনি ব্যাবস্থা গ্রহণ করবো।


এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest