বরিশালে প্রধান শিক্ষক শাহ্ আলমের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা

প্রকাশিত: ১:৪২ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২০

বরিশালে প্রধান শিক্ষক শাহ্ আলমের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা

শফিউর রহমান কামাল বরিশাল ব্যুরোঃ বরিশাল নগরীর কালিবাড়ি রোডস্থ জগদীশ সারস্বত গালর্স স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক শাহ্ আলমের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। তিনি অনিয়ম আর দুর্নীতির থেকে রেহাই পেতে বেছে নিয়েছেন অভিনব এক কৌশল। জানাগেছে প্রধান শিক্ষক তার এই অপকর্ম ফাঁস হওয়ার ভয়ে সহকারী শিক্ষকদের ম্যানেজ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। তবে লাগামহীন অনিয়ম আর দুর্নীতি সহ্য করতে না পেরে গত রবিবার ( ৯ ফেব্রয়ারী) সকাল পোনে ১১ টার দিকে স্কুলে বসেই প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহ আলমকে লাঞ্ছিত করে কয়েকজন শিক্ষক। আর এই ঘটনার একদিন পরই তার সকল অপকর্ম থেকে রেহাই পেতে নিজস্ব ক্ষমতাবলে ফ্রেব্রুয়ারি চলতি মাস না পেরুতেই ওই স্কুলের ২১ জন শিক্ষকের একাউন্টে বেতনের টাকা জমা দিয়ে তাদেরকে ম্যানেজ করার চেষ্টা করছেন বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষক। প্রধান শিক্ষকের এমন অনৈতিক কর্মকান্ড দেখে অতিষ্ঠ ওই স্কুলের সাথে সংশ্লিষ্টরা। অনেকে মনে করেন প্রধান শিক্ষক শাহ আলমের অনিয়ম আর দুর্নীতি যেন লাগামহীন ঘোড়ার মত একের পর এক অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন। এমনকি তার অপকর্মের প্রতিবাদ করতে গিয়ে অনেকেই লাঞ্চিত হয়েছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, এই স্কুলে প্রধান শিক্ষক শাহ আলম ও চারজন খন্ডকালীন শিক্ষকসহ আরো একুশজন শিক্ষক উক্ত স্কুলে কর্মরত রয়েছে। এরা সকলেই বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের কয়েকজন প্রভাবশালী নেতার ছত্রছায়ায় থেকে স্কুলের নিয়ম ও বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে প্রতিদিন শতাধিক শিক্ষার্থীদেরকে বাধ্যতামূলক কোচিং করিয়ে প্রতিমাসে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। বাধ্যতামূলক কোচিং করানোর ফলে শিক্ষকদের কাছে নিরুপায় হয়ে পড়েছে ওই স্কুলের নিরীহ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। তাদের এই অনিয়ম দুর্নীতি আর স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করছেন অভিভাবকবৃন্দ।

(আসছে বিস্তারিত)


Pin It on Pinterest