ঢাকা থেকে তানোরের বিল্লিতে ট্রাকে করে এলো নারীসহ ২৪ জন

এপ্রিল ১৭ ২০২০, ১০:৩২

ওমর ফারুক, রাজশাহী ব্যুরো: লকডাউন এর মধ্যেও রাজধানী ঢাকার হেমায়েতপুর থেকে ট্রাকে করে ইটভাটার শ্রমিক ও এক নারীসহ মোট ২৪ জন এসেছে রাজশাহীর তানোর উপজেলার বিল্লি হাটে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে তারা ঢাকা থেকে ট্রাকে করে তানোর উপজেলার ১ নং কলমা ইউনিয়নের বিল্লি হাট গিয়ে পৌঁছায়। স্থানীয় মানুষজন সকালে তাদের বিল্লি বাজারে দেখতে পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য ডা. সেকেন্দার আলীকে খবর দেয়। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান। ট্রাকে চলে আসা ২৪ জনের মধ্যে ১৩ জন তানোর উপজেলার ও বাকি ১১ জন পার্শ্ববর্তী নাচোল উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা। পরে তাদের মধ্যে ১৩ জনকে বিল্লি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টিনে রাখা হয়। বাকি ১১ জনকে নিজামপুর ইউনিয়ন পরিষদের একজন ইউপি সদস্যদের জিম্মায় তুলে দেওয়া হয়। তবে এত কড়াকড়ি পরও কিভাবে তারা রাজধানী ঢাকা থেকে রাজশাহীর তানোর উপজেলার বিল্লি হাট পর্যন্ত পৌঁছালো এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে দেখা দিয়েছে নানান জল্পনা-কল্পনা। এ তথ্য নিশ্চিত করে ১ নং কলমা ইউনিয়নের ১ নং বিল্লি ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ডা. সেকান্দার আলী জানান, আজ বৃহস্পতিবার যে ২৪ জন শ্রমিক ঢাকা থেকে ট্রাকে করে এসেছে তারা ঢাকার হেমায়েতপুরে একটি ইটভাটায় কাজ করতো। এরমধ্যে ২৩ জন পুরুষ ও একজন নারী রয়েছে। সকালে বাজারে ট্রাক থেকে নামতে দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা কল দিয়ে বিষয়টি তাকে জানান। বিষয়টি জানার পর পরই তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান। এরপর তিনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কে বিষয়টি জানান। খবর পেয়ে চেয়ারম্যান ঘটনাস্থলে আসেন। ২৪ জনের মধ্যে ১৩ জন কলমা ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড বিল্লির আশেপাশের চৌৎপুর, কুচিয়ামোড়াসহ অন্যান্য গ্রামের বাসিন্দা রয়েছে। ১১ জন নাচোল থানার নেজামপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা। এজন্যে নিজামপুর ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যকে খবর দিয়ে ডাকা হয়। এরপর ১১ জনকে নিয়ে যান ও ট্রাক ড্রাইভারকেও নিয়ে যান তিনি। আর ইউনিয়নের ১৩ জন বাসিন্দাকে বিল্লি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। তাদেরকে সেখানে ১৪ দিন থাকতে বলা হয়েছে। বিষয়টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে থানাকেউ জানানো হয়েছে। তারা গভীর রাতে ঢাকা থেকে ট্রাকে করে বেরিয়ে সকাল সাতটার দিকে বিল্লি এসে পৌঁছান বলে জানিয়েছেন। হাইওয়ে সার্কেল বগুড়া রিজিয়নের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রায়হান ইবনে রহমান বলেন, ট্রাকটি হয়তো কোন লিংক রোড দিয়ে এসেছে। হাইওয়ে পুলিশ গণপরিবহন ঠেকাতে তৎপর রয়েছে। যেসব যানবাহন নির্দেশনা না মেনে চলাচল করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রাজশাহী জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম বলেন, বিষয়টি আমাদের জানা ছিল না। খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তারা কিভাবে ট্রাকে করে এসেছে সে বিষয়টিও খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আমাদের ফেসবুক পেজ


Pin It on Pinterest