ঠাকুরগাঁওয়ে ১৫০ জন দুস্থ ও কর্মহীন পরিবারের খাবারের ব্যবস্থা করলেন একতা প্রতিবন্ধী স্কুলের পরিচালক আমিরুল ইসলাম, মোঃ হোসেন।

প্রকাশিত: ৩:৫৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২, ২০২০

ঠাকুরগাঁওয়ে ১৫০ জন দুস্থ ও কর্মহীন পরিবারের খাবারের ব্যবস্থা করলেন একতা প্রতিবন্ধী স্কুলের পরিচালক আমিরুল ইসলাম, মোঃ হোসেন।
আব্দুল আউয়াল ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ঃ বর্তমান সময়ে বিশ্বব্যাপী এক আতংকের নাম কোভিড ১৯ অর্থাত করোনা ভাইরাস । বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বাংলাদেশও। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছে ৫১ জন। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে গত ২৬ মার্চ থেকে সারা দেশে সাধারণ ছুটিও ঘোষণা করা হলেও সেই ছুটির সময় বাড়ানো হয়েছে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত। সারা দেশে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। শহরের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলও কার্যত অঘোষিত ‘লকডাউন’ ঘোষণা করা হয়েছে। এ অবস্থায় ঘর থেকে বের হতে পাচ্ছে না নিম্ন আয়ের মানুষ। অসহায় এসব নিম্ন আয়ের হতদরিদ্র, দুঃস্থ ও কর্মহীন ১৫০ জন পরিবারের নিজ অর্থায়নে খাবারের ব্যবস্থা করলেন একতা প্রতিবন্ধী স্কুলের পরিচালক আমিরুল ইসলাম ও মোঃ হোসেন। বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) সকাল ১১ টায় ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আরাজি ঝারগাঁ গ্রামের বিভিন্ন মহল্লাও ওয়ার্ডে হত দরিদ্র পরিবার খুঁজে খুঁজে বের করে তাদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন। এ সময় ১৫০ জন পরিবারের মাঝে প্রত্যেক পরিবারে জন্য ৫ কেজি চাল ১ কেজি চিড়া, ২ পিস সাবান, ১ কেজি আটা, ২ কেজি আলু, ৫শ’ গ্রাম ডাল সহ খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট দেওয়া হয়। খাদ্য সামগ্রী প্রদানের সময় একতা প্রতিবন্ধী স্কুল ও পুর্ণবাসন কেন্দ্রের পরিচালক আমিরুল ইসলাম প্রতিটি পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন এবং সকল প্রকার সহযোগী করতে আশ্বাস প্রদান করেন। এ সময় তিনি বলেন, আমি আপনাদের পাশে আছি,কেউ না খেয়ে থাকলে আমাকে বলবেন। সরকারের নিয়ম মেনে গণজমায়েত না করে বাসায় অবস্থান করার অনুরোধ জানান তিনি। এসময় তিনি আরো বলেন,করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সবাইকে সচেতন হতে হবে। অপ্রয়োজনীয় বাড়ী থেকে বের হওয়া যাবে না। আতংক নয় সচেতন হোন। তিনি নিজ নিজ এলাকায় অসহায় ও দরিদ্র শ্রেণির মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest