গাইবান্ধায় বেসরকারী গণগ্রন্থাগার পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব নাসিম আহমেদকে সম্মাননা ও বৃক্ষ রোপণ

প্রকাশিত: ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০

গাইবান্ধায় বেসরকারী গণগ্রন্থাগার পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব নাসিম আহমেদকে সম্মাননা ও বৃক্ষ রোপণ

গাইবান্ধা থেকে আবু নাসের সিদ্দিক তুহিন। –
বাংলাদেশ বেসরকারী গণগ্রন্থাগার পরিষদ গাইবান্ধা জেলা শাখার উদ্যোগে শনিবার সুরবানী সংসদ মিলনায়তনে বৃক্ষ রোপন, সম্মাননা প্রদান, নবনির্বাচিত কার্যানির্বাহী কমিটির পরিচিতি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গাইবান্ধা সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহ সারোয়ার কবীর ও বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বেসরকারী গণগ্রন্থাগার কেন্দ্রীয় কমিটির মহা-সচিব মো. নাসিম আহমেদ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী বাস্তবায়নে সুরবানী সংসদ চত্বরে বকুল ও পলাশ ফুলের গাছ লাগান যথাক্রমে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি। অনুষ্ঠানের শুরুতেই অতিথিদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। পরে বাংলাদেশ বেসরকারী গণগ্রন্থাগার কেন্দ্রীয় কমিটির মহা-সচিব মো. নাসিম আহমেদকে জেলা কমিটির পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন এবং বাংলাদেশ বেসরকারী গণগ্রন্থাগার পরিষদ গাইবান্ধা জেলা শাখার নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহ সারোয়ার কবীর।
প্রধান অতিথি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহ সারোয়ার কবীর বলেন, শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড। সেজন্য সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়া ছাড়া জাতির সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয় বলে বর্তমান সরকার শিক্ষার উন্নয়নে সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করেছেন। বিশেষ করে বর্তমান সরকারের আমলে নারী শিক্ষায় উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জিত হয়েছে । শিক্ষার উন্নয়নে বেসরকারী গণ পাঠাগারগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে বিধায় জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের পাঠাগারগুলো উন্নয়নে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের উপর তিনি গুরুত্বারোপ করেন।
বাংলাদেশ বেসরকারী গণগ্রন্থাগার পরিষদ গাইবান্ধা জেলা শাখা ও সুরবানী সংসদের সভাপতি আবু জাফর সাবুর সভাপতিত্বে ও লতা সরকারের সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের জেলা সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম রঞ্জু ও সামিউল ইসলাম পিপলু, সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক মোক্তাদির রহমান রোমান, কোষাধ্যক্ষ একেএম মাহবুবুল হক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. বেলাল হোসেন প্রমুখ।

শেষে সুরবানী সংসদের শিল্পীদের আয়োজনে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। এতে সংগীত পরিবেশন করেন জাহিদ হাসান সবুজ, সেলিম হায়দার, লতা সরকার, তামান্না, রিংকি। তালযন্ত্রে সহযোগিতা করেন মনোরঞ্জন সরকার, আব্দুল বারী, আকতারুজ্জামান খান মহব্বত, শামীম প্রমুখ।
উল্লেখ্য জেলার সাঘাটা,সুন্দরগন্জ, পলাশবাড়ী, গোবিন্দগঞ্জ, সাদুল্লাপুর, ফুলছড়ি ও সদর উপজেলার বাংলাদেশ জাতীয় গনগন্থাগারের রেজিস্ট্রেশনভুক্ত ও সরকারী অনুদান প্রাপ্ত ৩০টি গ্রন্থাগারের প্রতিনিধি এতে অংশ গ্রহন করেন।


এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest