মির্জাগঞ্জে প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় পরিদর্শন করলেন ইউনিভার্সিটি অব রচেষ্টারের সহকারী অধ্যাপক এহসান হক

প্রকাশিত: ৮:৫০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৯

মির্জাগঞ্জে প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় পরিদর্শন করলেন ইউনিভার্সিটি অব রচেষ্টারের সহকারী অধ্যাপক এহসান হক

কামরুজ্জামান বাঁধন,ষ্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায় ব্যক্তি উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত দুইটি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব রচেষ্টারের কম্পিউটার বিজ্ঞানের সহকারী অধ্যাপক এহসান হক। রবিবার দুপুরে উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের একতা বহুমুখী প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় ও সুবিদখালী প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে পৌঁছলে বাক,বুদ্ধি,শ্রবন ও শারিরীক ভাবে অক্ষম প্রতিবন্ধী শিশুরা তাকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানায়। পরিদর্শনকালে তিনি এসকল প্রতিবন্ধী শিশুদের সাথে এ্যালফাবেট’র মাধ্যমে (ইশারায়) কথা বলেন ও তাদের খোঁজ খবর নেন এবং স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা ও জীবন যাপনে অক্ষম এসব প্রতিবন্ধীশিশুদের জীবন মানোন্নয়নে ব্যক্তি উদ্যোগে পরিচালিত স্কুলের পরিচালনা কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন।পরিদর্শনকালে তিনি বলেন,এসকল শিশুদের জীবন মানোন্নয়নে এখানে শিশুদেরকে স্কুলে যাতায়াতের জন্য বিনামূল্যে পরিবহন ব্যবস্থা,নিজস্ব অর্থায়নে শিশুদেরকে বিনামূল্যে দুপুরের খাবার সরবরাহ ও বিনা পারিশ্রমিকে শিক্ষকরা মাতৃস্নেহে যে পাঠদান করাচ্ছেন তা সত্যিই বিরল। তিনি আরও বলেন, বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের মাতৃস্নেহে পাঠদানের পাশাপাশি পরিবার থেকেও এসকল শিশুদের প্রতি আরও যতœবান হতে হবে। এসকল শিশুদেরকে সুস্থ করে তুলতে বিভিন্ন প্রযুক্তিগত সরঞ্জামাদি ব্যবহার করার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ারও আহবান জানান বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী কম্পিউটার বিজ্ঞানের সহকারী অধ্যাপক এহসান হক। বিদ্যালয় পরিদর্শনকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সরোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন মির্জাগঞ্জ মাতৃসদন ও সার্জিক্যাল ক্লিনিকের পরিচালক ডাঃ নাঈমা কবীর,একতা বহুমুখী প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ কাওসার, সুবিদখালী প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রেজাউল ইসলাম,মির্জাগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন ও প্রেসক্লাব সদস্য কামরুজ্জামান বাঁধন প্রমূখ। উল্লেখ্য,বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ইউনিভার্সিটি অব রচেষ্টারের কম্পিউটার বিজ্ঞানের সহকারী অধ্যাপক এহসান হক ২০১৩ সালে ম্যাসাচুসেটস ইনষ্টিটিউট অব টেকনোলজির মিডিয়া ল্যাব থেকে পিএইচডি সম্পন্ন করেন। মানুষ এবং যন্ত্রের সম্পর্ককে বাস্তবে রুপ দেওয়ার বিষয়ে “একটি রোবট মানুষের ভাষা,মুখভঙ্গি ও ইশারা বুঝে তার (মানুষের) সঙ্গে যাতে কার্যকর যোগাযোগ স্থাপন করতে পারে” এ বিষয়ে গবেষনা করে সফলতা অর্জন করেন তিনি ।##


মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest