মাত্র ৩ হাজার টাকায় সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদের ছড়াছড়ি l

প্রকাশিত: ৫:৩৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৪, ২০২১

মাত্র ৩ হাজার টাকায় সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদের ছড়াছড়ি l

দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ীর চরমাদার,কাউনিয়ারচর, হারুয়াবাড়ী মধ্যপাড়া, হারুয়াবাড়ী আদর্শ পাড়া, গুচ্ছ গ্রাম সহ বেশ কিছু এলাকায় মাত্র তিন থেকে সাড়ে তিন হাজার টাকার বিনিময়ে ৭১ এর সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা নামীয় সংগঠনের সদস্য করে সনদ, আইডি কার্ড, গেঞ্জি, ক্যাপ দেওয়া হচ্ছে নিরীহ গরীব মানুষদের। এলাকা ঘুরে দেখা গেছে বেশ কিছু মানুষকে
মুক্তিযোদ্ধা ভাতা ও রেশন পাইয়ে দেবার কথা বলে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা। বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারেক (মুক্তি) মধ্যস্থতাকারী মৃত আঃ রহমানের পুত্র হোসেন আলী (৪০) সাথে মোবাইলে (০১৭৪২***৭৩৮) কথা বললে হোসেনের কথা আটকে আসে এবং সংগঠনের কথিত চেয়ারম্যান সর্দার গোলাম মোস্তফাকে ফোনকল হস্তান্তর
করেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারেক মুক্তি এর কাছে কোন যুক্তি প্রমান দেখাতে পারেনি সংগঠনের চেয়ারম্যান। এই সব কাগুজে সার্টিফিকেট, টুপি, গেঞ্জি, ব্যাচ, আইডি কার্ড যে সব লোকের কাছে দেখা গেছে তার মাঝে, আবু শামা (৫২), জবেদা (৫৪), মইরন(৪৯), পল্লী চিকিৎসক আব্দুল জলিল(৩৩), আঃ মতিন, আকলিমা, আছিয়া, জয়নাল, জহুরা, ছাহেরা, আমজাদ আলী, আশরাফ আলী, সুফিয়া বেগুম , গুডু গং। সার্টিফিকেটধারীগন
জানান, মোজাম্মেল হক গুডু, হোসেন আলী, ইসরাফিল ও হরীপুর গ্রামের কাশেম আলী বাড়ী
বাড়ী গিয়ে লোক সংগ্রহ করেন। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা সাবেক ডেপুটি কমান্ডার
বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ তারিক উজ্জামান জানান এমন কোন সংগঠন আছে বলে আমার
জানা নাই, আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখবো। ময়মনসিংহ মহানগর প্রেসক্লাব সভাপতি ও
দৈনিক দুর্জয় বাংলা’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক শিবলী সাদিক খাঁন বলেন সরকারী অনুমোদন হীন এসব সংগঠন বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া অতি জরুরী। এসব প্রতারকদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত রাখতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন জনসাধারণ।


মুজিব বর্ষ

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Pin It on Pinterest