খুলনায় করোনা আরো ৫ জনের মৃত্যু, ৮০ জন্য শনাক্ত

জুলাই ২৮ ২০২০, ১২:৫৬

গোলাম মোস্তফা খান, খুলনা।

খুলনায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে আরো পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে একজন করোনায় আক্রান্ত ও অপর চারজন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। গতকাল সোমবার খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ও জেলার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁদের মৃত্যু হয়। এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনার ল্যাবে আরো ৮০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

খুলনার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. শেখ ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানান, গতকাল সকাল ৭টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাবর খান (৫৫) নামের এক করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি নগরীর টুটপাড়া তালতলা হাসপাতাল রোড এলাকার আমির হামজা খানের ছেলে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত শনিবার রাত ১০টা থেকে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

অন্যদিকে, করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে খুমেক হাসপাতালের করোনা সাসপেক্টেড আইসোলেশন ওয়ার্ডে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিরা হলেন খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কড়াইকাঠি এলাকার আকবর (৭০), দিঘলিয়া উপজেলার আড়ংঘাটা এলাকার আসাদুজ্জামান (৭৮), সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার রামনগর এলাকার শেখ আবুল বাশার (৮৫) ও বাগেরহাটের কাড়াপাড়া এলাকার আবদুর রহমান (৮০)।

খুমেক হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ও আইসোলেশন ওয়ার্ডের ফোকালপারসন ডা. মিজানুর রহমান জানান, গত ১৮ জুলাই দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন সাতক্ষীরার শেখ আবুল বাশার। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সকাল পৌনে ১০ টার দিকে মৃত্যু হয় তাঁর।

এ ছাড়া, গত শনিবার রাত পৌনে ১০টা থেকে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন পাইকগাছা উপজেলার বাসিন্দা আকবর। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল দুপুর ৩টার দিকে মৃত্যু হয় তাঁর।

জ্বর, শ্বাসকষ্ট সমস্যা নিয়ে গত রোববার রাত সাড়ে ১১টার পর আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন বাগেরহাটের আবদুর রহমান। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল ভোর সাড়ে ৫টার দিকে মৃত্যু হয় তাঁর।

এ ছাড়াও শ্বাসকষ্ট নিয়ে গত রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন আড়ংঘাটা এলাকার আসাদুজ্জামান। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওইদিন দিবাগত রাতে তিনি মারা যান।

করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া এই চারজনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

এদিকে, খুমেকের আরটি-পিসিআর ল্যাবে আরো ৮০ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। গতকাল সোমবার তাদের নমুনা পরীক্ষার পর রিপোর্ট পজিটিভ আসে। খুমেকের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ডা. মেহেদী জানান, খুমেকের আরটি-পিসিআর মেশিনে গতকাল মোট ২৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যার মধ্যে খুলনার নমুনা ছিল ১৮৪টি। এর মধ্যে মোট ৮০ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। করোনা শনাক্ত হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ৪৬ জনই খুলনার বাসিন্দা। এ ছাড়াও সাতক্ষীরার ২০ জন, বাগেরহাটের আটজন, নড়াইলের তিনজন, যশোরের একজন ও ঝিনাইদহের দুজনের করোনা শনাক্ত হয়।

মুজিব বর্ষ

আমাদের ফেসবুক পেজ


ভিন্ন খবর আরও