রাজশাহীতে ভূয়া রশিদে এতিমখানার নামে টাকা তুলে আত্মসাৎ, আটক ১১

প্রকাশিত: ১:৫৬ অপরাহ্ণ, মে ৮, ২০২১

রাজশাহীতে ভূয়া রশিদে এতিমখানার নামে টাকা তুলে আত্মসাৎ, আটক ১১

রাজশাহী ব্যুরো : রাজশাহী মহানগরীতে ভূয়া রশিদে মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে টাকা তুলে আত্মসাৎ ও প্রতারক চক্রের ১১ সদস্যকে আটক করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। এরা দীর্ঘদিন ধরেই রাজশাহী মহানগরীতে এভাবে প্রতারণা করে টাকা তুলে আসছে। যেসব রশিদ দিয়ে মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে টাকা তোলা হয় সেসব মাদ্রাসা ও এতিমখানার কোনো অস্তিত্বই নেই। যদি কোন মাদ্রাসার অস্তিত্ব থাকে তবে সেই কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানেনা। তাদের অজান্তে ভূয়া রসিদ ব্যবহার করে তোলা হত টাকা। রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ১১ প্রতারক সদস্যকে আটক করেছে।

পুলিশ জানায়, পুলিশ জানতে পারে কিছু ব্যক্তি ধর্মপ্রাণ মুসলমানের অনুভুতি ও ধর্মীয় বিশ্বাসকে পুঁজি করে রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানার হযরত আয়েশা সিদ্দিকা (রাঃ) বালিকা ক্বারিয়ানা হাফিজিয়া আবাসিক মাদ্রাসা লিল্লাহ বোডিং ও এতিম খানা এবং অন্যান্য মাদ্রাসার এতিম খানার নামে ভূয়া রশিদ তৈরি করে প্রতারণার মাধ্যমে চাঁদা আদায় করছে।

প্রতারণা করে চাঁদা আদায়ের বিষয়টি রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের নজরে আসে। পরবর্তীতে তথ্যের সূত্র ধরে গোয়েন্দা পুলিশের একটি বিশেষ টিম গত ৭ মে রাতে রাজপাড়া থানার ঘোষের মাহাল এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে ভূয়া রশিদ তৈরি করে চাঁদা আদায়ের অপরাধে ১১ প্রতারক সদস্যকে আটক করে। এসময় আটককৃতদের হেফাজত হতে ভূয়া রশিদ ও ভূয়া রশিদের মাধ্যমে উত্তোলনকৃত নগদ ৩৫,২৫০ (পঁয়ত্রিশ হাজার দুইশত পঞ্চাশ) টাকা উদ্ধার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে ভূয়া রশিদ তৈরি করে চাঁদা আদায়ের কথা স্বীকার করে। আটককৃতরা জানায়, তাদের অধিকাংশের বাড়ী রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলায়। দীর্ঘদিন যাবৎ তারা একত্রিত হয়ে রাজশাহী মহানগর এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে রমজান ও ঈদকে উদ্দেশ্যে করে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের নিকট হতে বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিম খানার নামে ভূয়া রশিদ এর মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করে আসছিলো। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।


মুজিব বর্ষ

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Pin It on Pinterest