রাজশাহীতে এক বছরে ২২৭ জন নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার

প্রকাশিত: ১:০০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩, ২০২০

রাজশাহীতে এক বছরে ২২৭ জন নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার

ওমর ফারুক, রাজশাহী: রাজশাহীতে গত এক বছরে ২২৭টি নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে ১২১ টি নারী ও ১০৬ টি শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ও জাতীয় সংবাদপত্রসমূহ এবং বেসরকারি উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংস্থা ‘এ্যাসোেিয়শন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’র নিজস্ব প্রাপ্ত তথ্যের উপর ভিত্তি করে এই জরিপ পরিচালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুরে এসিডি’র ‘রিসার্চ, ডকুমেন্টেশন এন্ড পাবলিকেশন ইউনিট’ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বছরজুরে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ঘটনাগুলো হলো- গত ১৩ জানুয়ারি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি, ৩০ জানুয়ারি পুঠিয়ার বানেশ্বরে শিশুর সামনে পেট্রোল ঢেলে মায়ের গায়ে দুর্বৃত্তদের আগুন, ৪ ফেব্রয়ারি পুঠিয়ায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে (১৭) ধর্ষণ, ২৪ ফেব্রয়ারি বাঘায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টা, একই দিনে পুঠিয়ায় বিচার না পেয়ে ক্ষোভে লজ্জায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, ৪ মার্চ বাঘায় ইসলামী জলসা থেকে বাড়ী ফেরার পথে এক গৃহবধুকে ধর্ষণের চেষ্টা, ২১ মার্চ গোদাগাড়ীতে প্রেমের ফাঁদে ফেলে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ২ এপ্রিল বাঘায় শিশু বলাৎকারের অভিযোগ, ৪ এপ্রিল তানোরে চান্দুরিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের স্ত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা, ২৭ এপ্রিল যৌতুকের দাবিতে বাগমারায় গৃহবধূকে হত্যা, মে মাসে তানোর উপজেলার প্রকাশনগর আদর্শ গুচ্ছগ্রামে শ্বাশুড়িকে বাঁশ দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যার পর লাশ মাটিতে পুতে রাখা, ২৭ মে একই উপজেলায় ছেলের হাতে মা খুন, একই মাসে পুঠিয়ায় ৭ বছরের শিশুকে জবাই করে হত্যা, ২৪ মে গোদাগাড়ীতে লাঠির আঘাতে ৩ মাসের শিশু হত্যা, ২৩ জুন মোহনপুরে ধর্ষণের পর গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা, একই দিনে মোহনপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা, ১৯ জুন তানোরে গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, ১৫ জুন বাগমারায় জাম দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা। এছাড়া ২ জুলাই পুঠিয়ায় গভীর রাতে নারীকে কুপিয়ে হত্যা, ৯ জুলাই গোদাগাড়ীতে মাদকাসক্ত ছেলের হাতে মা খুন, ১৭ জুলাই দুর্গাপুরে অন্তঃসত্ত¡া নারীকে নির্যাতন করে গর্ভপাত, ১০ আগস্ট মহানগরীর সোনাদিঘীর মোড় এলাকায় রুয়েটের এক শিক্ষকের স্ত্রী বখাটেদের হাতে শ্লীলতাহানির শিকার, ১৯ আগস্ট মোহনপুরে স্ত্রী ডিভোর্স দেয়ার ঘটনায় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ, ২৯ আগস্ট রাতে নগরীতে পুলিশ কনস্টেবলের হাতে নারী শ্লীলতাহানির শিকার, ৪ সেপ্টেম্বর মোহনুপরে স্কুলছাত্রীর ঘরে ঢুকে ধর্ষণ, গত ৫ সেপ্টেম্বর একই উপজেলায় প্রেমিকের বাড়িতে বিষপানে প্রেমিকার আত্মহত্যা, ১৬ সেপ্টেম্বর চারঘাটে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ১৮ সেপ্টেম্বর দূর্গাপুরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ২৪ সেপ্টেম্বর ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী শ্লীলতাহানির শিকার, ২৬ সেপ্টেম্বর নগরীর ধরমপুরে রাবি শিক্ষকের বাসায় ওই শিক্ষকের ভাইয়ের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে, ২০ অক্টোবর বাগমারায় কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, ১ নভেম্বর নগরীর কাটাখালিতে শ্বশুড়বাড়িতে গিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, ১৪ নভেম্বর নগরীতে ছুরিকাঘাতে কলেজছাত্র খুন, একই দিনে চারঘাটে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা, ২১ নভেম্বর রামেক হাসপাতালের তিনতলা থেকে লাফিয়ে নারীর আত্মহত্যা, ২৮ নভেম্বর নগরীতে মেয়ে সহপাঠিকে যৌন হয়রানির অভিযোগে কলেজছাত্রকে ছাত্রকে মারধর। ১ ডিসেম্বর গোদাগাড়িতে পরকিয়ার প্রতিবাদ করায় চাচাতো ভাই, ভাবিসহ চারজনকে পিটিয়ে জখম, ১২ ডিসেম্বর রাজশাহীতে চলন্ত বাসে যুবতীকে যৌন হয়রানি, ১৮ ডিসেম্বর মোহনপুরে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের চেষ্টা, ২৮ ডিসেম্বর মহানগরীতে নাতির পিটুনিতে দাদি গুরুতর জখম। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, জেলায় এক বছরে ১২১ টি নারী নির্যাতনের মধ্যে হত্যা ১১টি, হত্যার চেষ্টা ২৬টি, রহস্যজনক মৃত্যু ৩ টি, ধর্ষণ ৯টি, ধর্ষণের চেষ্টা ৫ টি, আতœহত্যা ২৬ টি, আতœহত্যার চেষ্টা ১১টি, অপহরণ ৫টি, যৌনহয়রানী ১৭ টি, নিখোঁজ ৩টি, এসিড নিক্ষেপ ১ টি এবং অন্যান্য ঘটনা ঘটে ৪টি। জেলায় গত এক বছরে শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ১০৬ টি। এরমধ্যে শিশু হত্যা ৯টি, হত্যার চেষ্টা ৪টি, ধর্ষণ ১৭টি, ধর্ষণের চেষ্টা ১২টি, অপহরণ ২০টি, আত্মহত্যা ১০টি, আত্মহত্যার চেষ্টা ৫ টি, যৌনহয়রানী ১৬টি, নিঁেখাজ ৭ টি ও অন্যান্য ঘটনায় ৬ জন শিশু নির্যাতনের শিকার হয়। জেলায় এক বছরে শিশু নির্যাতনের ঘটনার মধ্যে মহানগরীর থানাগুলোতে সংঘটিত হয়েছে ২৫ টি এবং মহানগরীর বাইরের থানাসমূহে সংঘটিত হয়েছে ৮১ টি নির্যাতনের ঘটনা। এরমধ্যে বাগমারায় ১৬টি, বাঘায় ১৮টি, পুঠিয়ায় ১৩টি, মোহনপুরে ১২ টি, চারঘাটে ৪টি, গোদাগাড়ীতে ৮টি, পবায় ১টি, তানোরে ১ টি এবং দুর্গাপুরে ৮টি শিশু নির্যাতনে ঘটনা ঘটে। ১২১টি নারী নির্যাতনের ঘটনার মধ্যে মহানগরীর থানাগুলোতে সংঘটিত হয়েছে ৪৮ টি এবং মহানগরীর বাইরের থানাসমূহে সংঘটিত হয়েছে ৭৩ টি নির্যাতনের ঘটনা। এর মধ্যে মোহনপুরে ১০টি, বাগমারায় ১১টি, বাঘায় ১৮টি, পুঠিয়ায় ১২টি, গোদাগাড়ীতে ৭টি, পবায় ১টি, দুর্গাপুরে ৫টি, চারঘাটে ১টি এবং তানোরে ৮টি নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটে।


এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest