খুলনায় খেলার সাথীর আঘাতে স্কুল ছাত্র সায়েদ খানের মৃত্যু।

প্রকাশিত: ৬:০১ অপরাহ্ণ, জুন ২১, ২০২২

খুলনায় খেলার সাথীর আঘাতে স্কুল ছাত্র সায়েদ খানের মৃত্যু।

গোলাম মোস্তফা খান,খুলনা।
খুলনায় খেলার সহপাটির বেলচার আঘাতে সায়েদ খান নিরব (১৫) নামের এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার নগরীর দৌলতপুর মহেশ্বরপাশা পুলিশ ফাড়ির পাশে নির্মানাধীন ভবনের পাশে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কিশোর মহেশ্বরপাশা এলাকার মোঃ নিরু খানের ছেলে। সে দৌলতপুর শশীভূষণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র।
দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নজরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অপর কিশোর সাদিদ তালুকদার (১৪) কে আটক করে থানায় নেয়া হয়েছে। সাদিদ একই এলাকার সোহাগ তালুকদারের ছেলে।
দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম আরও বলেন, নিহত নিরব মহেশ্বরপাশা শশীভুষণ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র। সোমবার দুপুর ১১ টার দিকে মহেশ্বরপাশা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে কয়েকজন কিশোরকে নিয়ে খেলা করছিল নিরব। এ সময় অপর কিশোর সাদিদের সাথে বচসা হয় তার। একসময় নিরব সাদিদকে একটা চড় মারে। উভয়ের মধ্যে শুরু হয় হাতাহাতি। সাদিদ নিরবকে একধিক কিলঘুষি মারতে থাকে। একটি ঘুষি কানের নিচে লাগলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে সে। নিরব মাটিতে লুটিয়ে পড়লে পালিয়ে যায় সাদিদ। পরে তাকে উদ্ধার করে নির্মাণাধীন ভবনের শ্রমিকরা নিহতের বাড়িতে খবর দেয়। মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত সাদিদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়। সাদিদ সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত লেখা পড়া করেছে। সে স্থানীয় একটি মোটর গ্যারেজের শ্রমিক হিসেবে কর্মরত আছে।
অপরদিকে নিরবে প্রতিবেশী মিথিলা ফারজানা বলেন, নিহত কিশোর শান্ত স্বভাবের ছিল। কারও সাথে দুই ঠোট এক করেনি। সকালে বাড়ি থেকে খেলার উদ্দেশ্যে বের হয়


মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest