পুলিশ ১৭জন সহ বরিশাল জেলায় মোট ৪৫ জন করোনা শনাক্ত

জুন ০১ ২০২০, ২৩:০৯

শফিউর রহমান কামাল বরিশাল ব্যুরো ঃআজ ০১ জুন তারিখে বরিশাল জেলায় নতুন করে আরো ৪৫ জন ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছে। আজ ঢাকার ইনস্টিউট ফর ডেভেলপিং সায়েন্স এন্ড হেলথ ইনিশিয়েটিভ থেকে প্রাপ্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী বাবুগঞ্জ উপজেলার ০২ জন, শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ থেকে প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী বাকেরগঞ্জ উপজেলার ০১ জন, বানারীপাড়া উপজেলার ০১ জন, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ১৬ জন সদস্য ও উপ মহা পুলিশ পরিদর্শক কার্যালয়ের ০১ জন কর্মকর্তা সহ পুলিশ বিভাগের ১৭ জন, শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ০২ জন নার্স, ০১ জন টেকনলজিস্ট, ০১ জন কার্পেন্টার ও ০১ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মীসহ ০৫ জন, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের ০১ জন চিকিৎসক, বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকাধীন রুপাতলি এলাকার ০৩ জন, আলেকান্দা ও বৈদ্যপাড়া প্রত্যেক এলাকার ০২ জন করে ০৪ জন, কাউনিয়া, কাউনিয়া, ফকিরবাড়ি, বগুড়া রোড, দপ্তরখানা, ভাটেরখালে, অক্সফোর্ড মিশন রোড, নথুল্লাবাদ প্রত্যেক এলাকার ০১ জন করে ০৮ জন, এনসিসি ব্যাংক ও জনতা ব্যাংকে ০১ জন করে ০২ জন কর্মরত ব্যক্তিসহ মোট ১৭ জন, সদর উপজেলাধীন চর করমজি এলাকার ০১ জন সহ মোট ৪৫ জন ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছে।

আজ ০১ জুন এ জেলায় করোনা থেকে কেউ সুস্থতা লাভ করেনি। গত ২৬ মে আরোগ্য লাভ করা ০২ জন সহ অদ্যাবধি এ জেলায় মোট ৪৫ জন ব্যক্তি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

গত ৩০ মে মৃত্যুবরণ করা বাকেরগঞ্জ উপজেলার নিতাই নামে ০১ জন ব্যক্তি আজ করোনা পজিটিভ হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় ০৩ জন করোনা পজিটিভ ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৩ এপ্রিল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে প্রথমবারের মতো ০৩ জন ব্যক্তিকে করোনা থেকে সুস্থতার ছাড়পত্র প্রদান করা হয়।

গত ১২ এপ্রিল থেকে অদ্যাবধি বাবুগঞ্জ উপজেলায় ১৫ জন, সদর উপজেলায় শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ,নার্স ও শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের ছাত্রসহ ২৯৭ জন, উজিরপুর উপজেলায় ১১ জন, বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ১৩ জন, মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলায় ০৬ জন, হিজলা উপজেলায় ০৪ জন, বানারীপাড়া উপজেলায় ০৭ জন, মুলাদী উপজেলায় ০৫ জন, গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া উপজেলার প্রত্যেকটিতে ০৩ জন করে মোট ৩৬৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

আজ ০১ জুন মে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ০২ জন নার্স, ০১ জন টেকনলজিস্ট, ০১ জন কার্পেন্টার ও ০১ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মীসহ ০৫ জন, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের ০১ জন চিকিৎসক সহ মোট ০৬ জন স্বাস্থ্য বিভাগের ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছে। করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে এ জেলায় স্বাস্থ্য বিভাগে কর্মরত ১৬ জন চিকিৎসক (ইন্টার্ন চিকিৎসক ০৬ জন), ২২ জন নার্স, ০২ জন রেজিস্টার, ০১ জন নার্স সুপারভাইজার, ০২ জন মেডিকেল টেকনলজিস্ট, ০১ জন পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক, ০১ জন স্টোরকিপার, ০১ জন ড্রাইভার,০৩ জন স্টাফ, ০১ জন কার্পেন্টার, ০১ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মী সহ সর্বমোট ৫১ জন ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১২ এপ্রিল এ জেলায় প্রথমবারের মতো মেহেন্দীগঞ্জ ও বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ০২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তের পরিপ্রেক্ষিতে ঐদিনই জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

আমাদের ফেসবুক পেজ


Pin It on Pinterest