শহরে দাকোপের তরমুজের পিস ১৫০ থেকে ২০০ টাকা,মাঠের চাষিরা ১০টাকাও পাচ্ছে না।

প্রকাশিত: ৪:৫৮ অপরাহ্ণ, মে ১৭, ২০২২

শহরে দাকোপের তরমুজের পিস ১৫০ থেকে ২০০ টাকা,মাঠের চাষিরা ১০টাকাও পাচ্ছে না।

গোলাম মোস্তফা খান,দাকোপ,খুলনা

দাকোপ,বাজুয়ার তরমুজ বলতে দেশের সেরা তরমুজ খুলনারদৌলতপুর,গল্লামারি,বয়রা,সোনাডাংগা,ডাকবাংলামোড়, বড়বাজারবাজার সহ খুলনা শহরের বিভিন্নবাজারে ঘুরে দেখা যায় খুচরা ব্যবসায়ীরা দাকোপের তরমুজ,বাজুয়ার তরমুজ ২০ টাকা কেজি,২০ টাকা কেজি বলে হাক ডাক দিয়ে সমানে বিক্রি করে চলেছে।দেখে অবাক হলাম।এমনিভাবে দেশের ঢাকা, বাগেরহাট সহ অনেক জেলায় এখনও দাকোপ,বাজুয়া মানেই ভাল তরমুজ হিসাবে বিক্রি হচ্ছে। গোটা দেশে দাকোপের তরমুজের সুনাম ছড়িয়েছে যা আমরা পেয়েও হারাতে বসেছি, আমরা চিনলাম না আমাদেরকে, আমাদের মাটিকে।


এখনও শহরে আমাদের বড় বড় তরমুজ ২/৩ টাকা কেজি বা ফ্রি ট্রাক ভরে নিয়ে খুলনা ঢাকাসহ বিভিন্ন শহরে নিয়ে ১৫/২০ টাকা কেজি দরে দেদারছে বিক্রি করছে যার প্রতি পিসের দাম পড়ছে ১৫০ থেকে ২০০ টাকা, সচক্ষে দেখলাম।তারপর ছবি তুললাম খুলনার দৌলতপুরবাজার থেকে কয়েকটি গতকাল সোমবার রাতে। এ ছাড়া গরমে আবার তরমুজের চাহিদা বাড়ায় আজ মঙ্গলবার দাকোপ থেকে পানির চেয়েও কমদামে তরমুজ কিনে শত শত ট্রাক শহর অভিমুখে ছুটেছে যার কারনে প্রচন্ড যানজটেরও সৃষ্টি হয়েছে। পানখালী বরনপাড়া ও পোদ্দারগঞ্জের পার ট্রাকের লম্বা সিরিয়াল পড়েছে। তবে যত চাহিদা থাকুক না কেন তরমুজ চাষিরা কোন মুল্য পাচ্ছে না,মাত্র ৫/৬ হাজার টাকায় বিঘা ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছে যা ঈদের আগে বিঘা বিক্রি হয়েছিল দেড় লক্ষ টাকা।


মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest