বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে “বঙ্গবন্ধু চেয়ার” প্রতিষ্ঠা করায় উপাচার্য’র প্রতি শিক্ষক সমিতির কৃতজ্ঞতা

প্রকাশিত: ৬:০০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে “বঙ্গবন্ধু চেয়ার” প্রতিষ্ঠা করায় উপাচার্য’র প্রতি শিক্ষক সমিতির কৃতজ্ঞতা

লিটন বাইজিদঃ গত ১৩ ই সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ছাদেকুল আরেফিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের ৬৭ তম সভায় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম, রাজনৈতিক দর্শন ও মহান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষনা ও একাডেমিক কার্যক্রমকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষে “বঙ্গবন্ধু চেয়ার” প্রতিষ্ঠার এক সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বঙ্গবন্ধু আমাদের মাঝে নেই কিন্তু তাঁর আদর্শ আমাদের চিরন্তন প্রেরণার উৎস। তাঁর নীতি ও আদর্শ প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে ছড়িয়ে পড়ুক, গড়ে উঠুক সাহসী, ত্যাগী ও আদর্শবাদী নেতৃত্ব – এ প্রত্যাশা করি। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ সম্পাদনের মাধ্যমে দেশকে সোনার বাংলায় পরিণত করাই হোক মুজিববর্ষে আমাদের সকলের অঙ্গীকার।

১৯৭৫ সালের পর জাতির জনকের জীবন, কর্ম ও নীতি নিয়ে যে পরিমাণ গবেষণা হওয়ার প্রয়োজন ছিল তা খুব একটা হয়নি প্রতিক্রিয়াশীলদের চক্রান্তের কারণে। এ বিষয়ে এখনও তেমন উল্লেখযোগ্য কোন প্রাতিষ্ঠানিক গবেষণা নেই। সুনির্দিষ্টভাবে বঙ্গবন্ধুর জীবন, নীতি ও কর্মের ওপর গবেষণা হওয়া প্রয়োজন এবং গবেষণার প্রচুর সুযোগও আছে। পরবর্তী প্রজন্মের প্রয়োজনে, ইতিহাসের প্রয়োজনে জতির পিতাকে নিয়ে ব্যাপক গবেষণা হওয়া দরকার। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি বিশ্বাস করে “বঙ্গবন্ধু চেয়ার” প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গবেষণার যে দ্বার উন্মোচিত হলো তা আমাদের ইতিহাসকে সমৃদ্ধ করবে, স্থায়ীত্ব দিবে এবং নতুন প্রজন্মের ইতিহাসবোধকে জাগ্রত করবে। তরুণ প্রজন্মের মনোজগতে বঙ্গবন্ধুর আধিপত্য যত বেশি হবে, তত বেশি উজ্জ্বল ও সুগম হবে অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা ও দ্রারিদ্র্যমুক্ত বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার পথ।
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে “বঙ্গবন্ধু চেয়ার” প্রতিষ্ঠার উদ্যোক্তা যিনি ছাত্রজীবন থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন। উপাচার্য মহোদয়ের এই মহতি উদ্যোগ গ্রহণের জন্য বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি এবং এই উদ্যোগের সফলতা কামনা করছি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

ফেসবুক পেজ

Pin It on Pinterest