পাঁচবিবিতে কৃষকের কৃষি কার্ড ব্যবসায়ীদের কাছে ৫শ’ টাকায় বিক্রি

প্রকাশিত: ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯

পাঁচবিবিতে কৃষকের কৃষি কার্ড ব্যবসায়ীদের কাছে ৫শ’ টাকায় বিক্রি

আল-কারিয়া চৌধুরী, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ সরকারি খাদ্য গুদামে সরকারের বেধে দেওয়া মূল্যে কৃষকরা সরাসরি ধান দিতে পারবেনা এমন কথা বলে জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার প্রান্তিক কৃষকদের কাছ থেকে ৫’শ টাকার বিনিময়ে কৃষকদের কৃষি কার্ড ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি সংগ্রহ করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনুসন্ধানে জানাগেছে, উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ধান ব্যবসায়ী হাসিদুল ইসলাম পাঁচগছি গ্রামের মৃত মোকলেছ আলী মন্ডলের ছেলে জিএম আলী মন্ডল, মৃত আঃ রহমান আলী মন্ডলের ছেলে জিন্নাত আলী মন্ডল, আব্দুল হকের ছেলে জহুরুল ইসলাম ও একই গ্রামের মৃত বছির উদ্দীনের ছেলে জায়বর আলীসহ এলাকার বেশকিছু কৃষকের কাছ থেকে ৫শ’ টাকার বিনিময়ে কৃষকদের কৃষি কার্ড ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি নিয়ে যায়। পাঁচগছি গ্রামের প্রান্তিক কৃষক জিএম আলী মন্ডল জানান, আমার যতটুকু ধান ছিল তা আগেই বিক্রি করে দিয়েছি। এখন ধান কোথায় পাবো? একই গ্রামের প্রান্তিক কৃষক জিন্নাত আলী ও জহুরুল ইসলাম বলেন, ধান ব্যবসায়ী হাসিদুলের কাছে আমাদের নামের তালিকা দেখে বিশ্বাস করেছি হয়ত অফিস তার মাধ্যমে ধান নিবে। পরে বিষয়টি প্রতারণার মত মনে হলে আমরা ৮/৯ জন কৃষক হাসিদুলকে চাপ দিলে সে ৩/৪ দিন পর এসে কার্ড দিয়ে টাকা ফেরত নিয়ে যায়। এবিষয়ে ধান ব্যবসায়ী হাসিদুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কার্ড নিয়েছিলাম পরে ফেরত দিয়েছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হবিবর রহমান হবু হাজী জানান, কিছুদিন আগে উপজেলার বিভিন্ন কর্মকর্তারা আমার ইউনিয়নে এসে কৃষকদের তালিকা নিয়ে লটারি করেন। সে সময়ে ওই কর্মকর্তাদের আমি প্রশ্ন করেছিলাম যে, এখানে তো কৃষক নেই তাহলে কৃষক কিভাবে বুঝবে কার নাম লটারিতে উঠেছে। তখন কর্মকর্তারা জানান আমার ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে কৃষকদের নামের তালিকা পাঠাবে। আর আমরা কৃষকদের জানিয়ে দিব। কিন্তু আমার ইউনিয়ন পরিষদে এখনও তালিকা আসেনি। অতচ এলাকার কিছু ধান ব্যবসায়ীরা হাতে করে সেই তালিকা নিয়ে এলাকার প্রান্তিক কৃষকদের ভুল বুঝিয়ে কৃষকদের কাছ থেকে ৫শ’ টাকায় কৃষি কার্ড কিনছে। তাহলে তারা কি ভাবে নামের তালিকা পেল?


এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest