সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্ত্রীর হাতে মুক্তিযোদ্ধা স্বামী খুন স্ত্রী ও ছেলে আটক

প্রকাশিত: ৬:৩৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩, ২০১৯

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্ত্রীর হাতে মুক্তিযোদ্ধা স্বামী খুন স্ত্রী ও ছেলে আটক

শামসুল কাদির মিছবাহ, সুনামগঞ্জ:
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে স্ত্রীর হাতে মুক্তিযোদ্ধা স্বামীকে খুন করার অভিযোগ ওঠেছে। রোববার দুপুরে উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামে মামলা মোকদ্দমা নিয়ে পূর্ববিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের লোকজনকে ফাসাঁতে নিজের স্ত্রীর শাবলের আঘাতে খুন হন তার স্বামী মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল বারিক(৬৫)। তিনি লক্ষীপুর ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামের মৃত মুসলিম উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্ত্রী আছিয়া বেগম(৫৫) ও ছেলে মিলন মিয়া(৩০)কে আটক করেছে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,২০১৭ সালে গ্রাম্য কোন্দলে নিহত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারিকের লোকজনের সাথে একই গ্রামে কালাশাহ’র বিরোধ চলছিল। এরই জেরে আব্দুল বারিকের লোকজনের হাতে কালাশাহ’র মেয়ের জামাই আফিজ মিয়া নিহত হন। এই ঘটনায় পরের দিন নিহত আফিজ মিয়ার স্ত্রী মোছাঃ আসমা বেগম বাদি হয়ে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারিক ও তার ছেলেদের আসামী করে দোয়ারাবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনার জেরে প্রতিপক্ষ কালাশাহ ও তার লোকজনকে ফাসাঁতে গিয়ে আজ দুপুরে উভয়পক্ষের লোকজনের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হয়। এরই জেরে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী আছিয়া বেগম নিজ বসত ঘরে এসে অসুস্থ স্বামী বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারিকের মাথায় শাবল দিয়ে আঘাত করলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এ ঘটনায় সুনামগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান ও দোয়ারাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন দোয়ারাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাশেম। তিনি বলেন, এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শিশু শাহিনের তথ্যের ভিত্তিতে তাৎক্ষণিক আফিয়া বেগম ও তার ছেলে মিলন মিয়াকে আটক করা হয়েছে।


এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest