উপজেলাবাসীর মাঝে স্বস্থির নিঃশ্বাস কলাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ ৫ বছর পর অপারেশন শুরু হয়েছে

প্রকাশিত: ৪:৪৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯

মো. ওমর ফারুক, কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ ৫ বছর পর অপারেশন থিয়েটার (ওটি) এর মাধ্যমে সিজার শুরু হয়েছে। হাসপাতালে দীর্ঘ কয়েক বছর পর আবার অপারেশন থিয়েটার চালু হওয়াতে উপজেলাবাসীর মাঝে স্বস্থি ও খুশির জোয়ার উপলদ্বি করা গেছে। বুধবার রাত ১০ টায় খুকুমনি নামে একজন প্রসুতির সিজারের মাধ্যমে চালূ হলো অপারেশন থিয়েটার। সিজারের মাধ্যমে জন্ম নেয়া নবজাতক শিশু ও মা দুজনেই সুস্থ রয়েছে। কলাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: জুনায়েদ হোসাইন খান লেলীনের স্বত্তাবধানে অপারেশনটি পরিচালিত হয়। এতে এ্যানেসথেসিয়া দিয়েছেন ডা: মো. শাহিন হাওলাদার (তাহসান) ও সহকারী হিসাবে ছিলেন ডা: মো. আশ্রাফুল ইসলাম। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সাল হতে হাসপাতালে সিজার করার সকল সরঞ্জামাদি থাকা স্বত্বেও ডাক্তার সংকটের কারনে অপারেশন থিয়েটার বন্ধ ছিল। বর্তমান সরকারের উদ্যেগে প্রতি উপজেলায় পর্যাপ্ত ডাক্তার নিয়োগ দেয়ায় সে সংকট এখন অনেকটা লাগব হয়েছে। এখন থেকে কলাপাড়া হাসপাতালে স্বল্প খরচে সিজারসহ যে কোন ধরনের অপারেশন করা হবে বলেও জানা যায়। সিজার হওয়া প্রসুতি খুকুমনি জানান, অল্প খরচের মধ্যে সরকারী হাসপাতালে সিজার করতে পেরে আমরা খুবই খুশি। এবিষয়ে কলাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: জে.এইচ.খান লেলীন জানান, হাসপাতালে আবার অপারেশন থিয়েটারটি চালু করতে পেরে আমাদের খুব ভালো লাগছে। অনেক গরীব রুগীদের পক্ষে প্রাইভেট ক্লিনিকে সিজার করার সামর্থ থাকে না। হাসপাতালে পর্যাপ্ত সরঞ্জামাদি থাকা স্বত্তেও ডাক্তার সংকটের কারনে আমরা এতোদিন নিরুপায় ছিলাম। এখন থেকে কলাপাড়া হাসপাতালে সিজারসহ যে কোন ধরনে অপারেশন নিয়মিত হবে বলেও তিনি আশা ব্যক্ত করেন। এছাড়াও এখন থেকে কলাপাড়া হাসপাতালে সিজারে জন্ম নেয়া প্রতিটি নবজাতক শিশুকে তার ব্যক্তিগত পক্ষ হতে একসেট করে জামা-কাপড় উপহার দিবেন বলেও তিনি জানান।


এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

মুজিব বর্ষ

Pin It on Pinterest